কবিতার কাছে ঋণ

154

কবিতার কাছে ঋণ

লেখকঃ মেহবুবা হক রুমা

কবিতা যারা বোঝে না তাদের না বুঝেই কাটুক দিন
আমার তো কবিতার কাছে হাজার বছরের ঋণ।
শ্রমিক, কৃষক, জেলে, গাঁয়ের রাখাল ছেলে কবিতা বোঝে না,
কবির মনের কবিতার বীজ বুনে তারাই,
শ্রমের নিংড়ানো বিন্দু বিন্দু ঘামে,
কবিতার স্তবকের শেষের যতি চিহ্ন এসে থামে,
হিংসা,বিদ্বেষ আর চক্ষশূল যত কাজে,
কবিতা কঠিন কবিতা অবুঝ বাজনা হয়ে বাজে।

প্রেমের কপালে কবিতা ছোট কালো বিন্দু,
একটু ছোঁয়ায় সাগরের ঢেউ
ভালোবাসায় জমে থাকা নাবলা কথার সিন্দু।

কবিতা স্বপ্নের সেই তুষার পাহাড়চূড়া,
কবিতা মানুষ তবুও পাখির পাখায় উড়া।

কবিতা মিথ্যে কবিতা ভুয়া এক রঙিন নেশার রাজ্য
আজব কিছু লোক কবিতা লেখে যাদের মৃত্যু অনিবার্য
ঝিম মেরে তারা বসে থাকে পথে,
মস্তিষ্কের শিরায় শিরায় জমে আছে রক্ত
ওরা দুর্বল দেহে নেই বল
অথচ বলে যায় কথা ভয়ানক শক্ত।

কবির কথায় জেগে ওঠে জনতা
কবির কথায় ভেঙে যায় জড়তা
জনেজনে সব হয়ে ওঠে কবির ভক্ত
যারা কবিতা বোঝে না
যারা যাত্রাপথে বিবেক খোঁজে না
তাদের কেটে যাক কবিতা না বুঝে দিন
আমি কবিতা বুঝি,কবিতা খুঁজি কবিতার
কাছে আমার হাজার বছরের ঋণ।